Warning: Creating default object from empty value in /home/dailyba3/public_html/wp-content/themes/CreativeNews/lib/ReduxCore/inc/class.redux_filesystem.php on line 29
ঈদ কেনাকাটায় খরচ বাঁচানোর বিজ্ঞানসম্মত ১০ কৌশল ঈদ কেনাকাটায় খরচ বাঁচানোর বিজ্ঞানসম্মত ১০ কৌশল – Daily Banglar Khabor
  1. feroz.pialnews@gmail.com : pial.banglarkhabor :
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন

ঈদ কেনাকাটায় খরচ বাঁচানোর বিজ্ঞানসম্মত ১০ কৌশল

  • আপডেটঃ বুধবার, ১৪ জুলাই, ২০২১, ১.২৩ পিএম
  • ৩৮৮ বার পঠিত
ঈদ মানেই নতুন জামা-কাপড়, ঘর সাজানোর বিভিন্ন জিনিস ইত্যাদি। তাছাড়া ঈদে আমরা নিজেদের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিস কেনার চেষ্টা করি। তবে সবারি কেনাকাটা করার জন্য নির্দিষ্ট একটি বাজেট থাকে। কিন্তু দেখা যায়, কেনাকাটা করতে গেলে সেই বাজেটের কথা মাথায় থাকে না। ফলে অনেক অবাঞ্চিত খরচ বেড়ে যায়। আবার অপ্রয়োজনীয় অনেক কিছুই কেনা হয়ে যায়।

এক্ষেত্রে আপনার টাকা আপনি কেনো ও কীভাবে খরচ করবেন এবং কীভাবে আপনি একজন দক্ষ ক্রেতায় পরিণত হতে পারবেন, এগুলোর পেছনে বেশ কিছু বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা রয়েছে। আজ আমাদের প্রতিবেদনটি সাজানো হয়েছে এরকম বিজ্ঞানসম্মত ১০টি কৌশল নিয়ে, যা আপনার বাজে খরচের পরিমাণ কমিয়ে আনতে সহায়তা করবে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই কৌশলগুলো-

>> বেশি দোকান ঘোরা পরিহার করুন। এতে অতিরিক্ত কেনাকাটা থেকে বিরত থাকতে পারবেন।

>> বেশি দামাদামি করে কেনাকাটা এড়িয়ে চলুন। কারণ বেশি লাভ করতে গিয়ে অনেক সময় আপনি ঠকেও যেতে পারেন।

>> কেনার আগে একটু ভেবে নিন। যা কিনতে চাচ্ছেন তা কি খুব বেশি দরকারি? কিংবা পণ্যটি কিনলে আপনার বাজেটের ১২ টা বাজবে কিনা ভেবে দেখুন।

>> কেনাকাটার জন্য নতুন টাকার নোট ব্যবহার করুন। ২০১২ সালে কনজ্যুমার রিসার্চ জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় বলা হয়েছে, অধিকাংশ মানুষ যে কোনো জিনিস কেনার ক্ষেত্রে পুরাতন এবং নোংরা টাকার নোটগুলো খরচ করে থাকেন, কেননা তারা নতুন নোটের তাজা ভাবটা হারাতে চান না। গবেষণায় অংশগ্রহণকারী ক্রেতাগণ নতুন নোটের তুলনায় পুরাতন নোট খরচে বেশি আগ্রহী ছিলেন। সুতরাং শপিংয়ে গেলে নতুন নোট খরচ করার চেষ্টা করুন। এতে আপনার খরচের আগ্রহ কমে যাবে।

>> উৎসবের জাঁকজমকতা থেকে সাবধান থাকুন। ছুটির দিন বা কোনো উৎসবমুখর পরিবেশে লাল এবং সবুজ রঙে সাজানো দোকানগুলো আপনাকে কেনাকাটায় উৎসাহিত করতে পারে এবং এর ফলে আপনার কেনাকাটার খরচ বেড়ে যায়।

>> উঁচু হিলের জুতা পরে শপিংয়ে যান। কেনাকাটার সময় ক্রেতাদের নিজের শারীরিক ভারসাম্যের প্রতি মনোযোগ থাকলে তারা দামী বা কম গুণগত মানের পণ্যের তুলনায় মাঝামাঝি দামের কোনো পণ্যের প্রতি বেশি আগ্রহী হন। ব্রিঘাম ইয়ং বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে, উঁচু হিলের জুতা অস্বাচ্ছন্দ্যকর হলে যোগব্যায়ামের পর অথবা শপিং মলের এস্কেলেটর ব্যবহারের পর কেনাকাটা করলে এরকম ফলাফল পাওয়া যায়।

>> অপরিচিত কারো সাহায্য নিন। গবেষণায় দেখা গেছে, আপনি যদি কোনো উপহার বেছে নেয়ার ক্ষেত্রে অপরিচিত কারো সাহায্য নেন তাহলে সেই পণ্যের বা জিনিসের ব্যবহার হওয়ার সম্ভাবনা অন্তত ১০ শতাংশ বেড়ে যায়। অর্থাৎ এক্ষেত্রে আপনার তুলনায় অপরিচিত সেই ব্যক্তির যথাযথ পণ্য বাছাইয়ের ক্ষমতা বেশি। সুতরাং, কোনো পণ্য নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগলে অন্য আরেক ক্রেতার পরামর্শ নিন।

>> বিক্রেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়া থেকে বিরত থাকুন। আপনি কেনাকাটা করতে গিয়ে বিক্রেতাদের সঙ্গে যত কথা বলবেন, আপনার কেনাকাটার আগ্রহ তত বাড়বে। বিষয়টা অনেকটা এমন, যে আপনাকে সাহায্য করল তার মনে আপনি কষ্ট দিতে চান না। ফলস্বরূপ আপনার খরচ বেড়ে যাবে।

>> কেনাকাটা থেকে সরে যাওয়ার চেষ্টা করুন। কোনো জিনিস কেনার তাগিদ, আপনার মস্তিষ্কের সুখদানকারী অংশকে উত্তেজিত করে তোলে। ফলে আপনার স্নায়ুতে ডোপামিন নামক হরমোনের নিঃসরণ হওয়া শুরু হয় এবং আপনার অনিচ্ছা সত্ত্বেও আপনি বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনা শুরু করেন। এ বিষয়ে গবেষক টারা পার্কার পোপ বলেন, ‘কোনো জিনিস দেখলে হুট করে সিদ্ধান্ত না নিয়ে প্রয়োজনে পরেরদিন আবার আসুন। এর ফলে আপনি সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন এবং বাজে খরচের হাত থেকে রেহাই পাবেন।’

>> ক্রেডিটকার্ড বাড়িতে রাখুন। গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষজন নগদ অর্থের তুলনায় ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটা করতে বেশি পছন্দ করেন। কেননা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে যতই খরচ হোক সেটা আপাতদৃষ্টিতে চোখে পড়ে না যেমনটা নগদ অর্থ ব্যয়ের ক্ষেত্রে হয়ে থাকে। এজন্য সবসময় ক্রেডিটকার্ড সঙ্গে নিয়ে ঘুরলে আপনার বাজে খরচের পরিমাণ বেড়ে যাবে।

এই পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটেগরির আরও নিউজ দেখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

All rights reserved © 2021 ডেইলি বাংলার খবর