Warning: Creating default object from empty value in /home/dailyba3/public_html/wp-content/themes/CreativeNews/lib/ReduxCore/inc/class.redux_filesystem.php on line 29
প্রশিক্ষণ ভাতার দাবিতে গাইবান্ধা পিটিআইয়ের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন প্রশিক্ষণ ভাতার দাবিতে গাইবান্ধা পিটিআইয়ের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন – Daily Banglar Khabor
  1. feroz.pialnews@gmail.com : pial.banglarkhabor :
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৪:১৫ পূর্বাহ্ন

প্রশিক্ষণ ভাতার দাবিতে গাইবান্ধা পিটিআইয়ের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

  • আপডেটঃ সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১, ১১.২৮ পিএম
  • ৫০৫ বার পঠিত

 

শহিদুল ইসলাম খোকন, গাইবান্ধাঃপ্রশিক্ষণ ভাতার দাবিতে গাইবান্ধা পিটিআই শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন।অতিদ্রুত তাদের পাওনা না দিলে তারা আরও কঠোর আন্দোলন যাবে বলে হুশিয়ারী সংকেত দেন।

মূলত, ডিপিএড প্রশিক্ষণ কোর্সটিতে অংশগ্রহণ করায় প্রশিক্ষণ বাবদ প্রশিক্ষণার্থীদের জনপ্রতি মাস হিসাবে তিন হাজার টাকা করে ভাতা প্রদান করা হয়, যা থেকে অধিকাংশ টাকা পিটিআইতে বিভিন্ন কাজেই ব্যয় হয়ে যায়।
কিন্তু ২০২০-২০২১ কোর্সে ছয় মাসের ভাতা দেওয়ার পর তাদেরকে আর কোন ভাতা দেওয়া হয়নি।কেউ কেউ আবার দু -একমাসের নাম সর্বস্ব ভাতা পেয়েছেন বলে জানা গেছে। এ ভাবে কোর্স শেষ হেলে নতুন ২০২১ – ২০২২ কোর্স চালু করেন। এ কোর্সের কে কেউ এ যাবত কোন ভাতায় পায়নি।

উল্লেখ্য যে ডিপিএড ভর্তির পর করোনা অতিমারীর কারণে ডিপিএড-এর স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হলেও শিক্ষাবর্ষের শুরু থেকেই ডিপিএড অনলাইন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহণ করার জন্যে প্রশিক্ষণার্থী শিক্ষকদের স্মার্টফোন কেনাসহ ওয়াইফাই লাইনের সংযোগ স্থাপন, প্রতি মাসের সংযোগ বিলের পাশাপাশি বিদ্যুৎ না থাকলে মোবাইল ডাটা বিলের জন্য অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে। পাশাপাশি অ্যাসাইনমেন্ট ও সংশ্লিষ্ট প্রস্তুতির জন্যও অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে।

দীর্ঘক্ষণ ডিভাইস ব্যবহারের জন্য বাড়তি যোগ হয়েছে চিকিৎসা খরচ। ভাতা প্রদান নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে প্রশিক্ষণার্থী শিক্ষকদের মানসিক ও আর্থিক চাপ লাঘবে কর্তৃপক্ষের সদয় সহযোগিতা কামনা করেন মানববন্ধনে অংশগ্রহনরত শিক্ষার্থীরা।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ‘অনলাইন প্রশিক্ষণ নির্দেশনা’ স্মারকে ‘প্রশিক্ষণ ভাতা’ অংশে উল্লেখ আছে, ‘কোর্স কনটেন্ট, কোর্সের মেয়াদ, ক্লাস সেশনের সময় প্রচলিত পদ্ধতির ন্যায় অপরবির্তিত থাকলে প্রশিক্ষণার্থীদের দৈনিক ভাতা অপরিবর্তিত থাকবে। এক্ষেত্রে মোবাইল ডেটা, কম্পিউটার, প্রিন্টিং এবং অন্যান্য আনুষাঙ্গিক ব্যয় প্রশিক্ষণ ভাতা থেকে নির্বাহ করতে হবে। অন্যান্য ভাতা অপরিবর্তিত থাকবে।

‘সেখানে, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ডিপিএড শিক্ষার্থীরা কেন তাদের প্রাপ্য পাবেন না তা আজও অজানা।

অপরদিকে, বিভাগীয় হিসাব রক্ষণ অফিস জানায়, করোনাকালীন প্রশিক্ষণ ভাতা না দিতে তাদের প্রতি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা রয়েছে। যদিও এ সংক্রান্ত কোনো লিখিত নির্দেশনা দেখা যায়নি।

ডিপিএড প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণভাতা নিয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। এভাবে চলতে থাকলে শিক্ষকদের মাঝে যে হতাশা, অনাগ্রহ বিরাজ করবে তাতে শিক্ষার ওপর নিশ্চিত নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন অনেকেই।
সেই সাথে ডিপিএড প্রশিক্ষণ ভাতা তারা পাবে কি পাবে না সে বিষয়ে পরিষ্কার বক্তব্য আশা করছেন। যদি না পায় তাহলে তার কারণও জানতে আগ্রহী তারা। মুখে মুখে পাবে বলে শুনে আসলেও প্রশিক্ষণার্থীরা মূলত সুস্পষ্ট বক্তব্য আশা করছে।

এই পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটেগরির আরও নিউজ দেখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

All rights reserved © 2021 ডেইলি বাংলার খবর